মসজিদ উদ্বোধনকালে এরদোগানের মাথায় পাখি !

3294

এরদোগানের মাথায় পাখি- বিশ্ববাসী বিরল এক দৃশ্য প্রত্যক্ষ করলো । প্রেসিডেন্টের মাথায় পাখি! এমনি এক ঘটনা ঘটেছে তুরস্কে। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের মাথার উপর আশ্রয় নিল একটি পাখি। জানা যায়, গত শুক্রবার কৃষ্ণ সাগরের তীরবর্তী শহর রাইজে একটি মসজিদের উদ্বোধনকালে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় মসজিদের উদ্বোধনকালে এরদোয়ান কয়েকটি ঘুঘু ও তিতির পাখি আকাশে ছেড়ে দেন। কিন্তু একটি পাখির মাথায় ভিন্ন চিন্তা কাজ করছিল। উড়ে না গিয়ে সে প্রেসিডেন্টের মাথার ওপর বসে পড়ে।

এসময় এরদোয়ান হাতে তালি দিয়ে পাখিটিকে তাড়াতে চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতেও কাজ হচ্ছিল না। শেষ পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হাসিমুখে পাখিটিকে মাথায় থাকার অনুমতি দেন।

অবশ্য কয়েক সেকেন্ড পরে সেটি স্বেচ্ছায় উড়ে যায়। আর এমন এক বিরল এক দৃশ্য প্রত্যক্ষ করলো সারাবিশ্ব।

রেসিংয়ে প্রথমবারের মতো সৌদি তরুণী রিমা জুফালি !

এবার কার রেসিংয়ে অংশ নিয়ে ইতিহাস গড়তে চলেছেন সৌদির রিমা জুফালি। কট্টরপন্থী সৌদিতে সম্প্রতি নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি দেয়া হয়েছে। ফলে সৌদির রাজপথ দাপিয়ে গাড়ি নিয়ে ছুটছেন সৌদি নারীরা।

কয়েক মাস আগেই সৌদির এই নারী দেশের মধ্যেই রেসিং কার চালিয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেন। এবার সৌদিতে প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক কার রেসিংয়ে অংশ নিয়েছেন রিমা জুফালি।

গত বছর থেকেই গাড়ি চালানোর অনুমতি পান সৌদি নারীরা। কিন্তু তার আগ পর্যন্ত দেশটিতে মেয়েদের গাড়ি চালানো নিষিদ্ধ ছিল। নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার পর থেকেই গাড়ি চালানোয় নারীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। সেই সাথে রেসিং কার চালানোর দিকেও ঝুঁকছেন অনেক নারী।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে সৌদির বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ ঘোষণা করেন, মেয়েদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে। এরপরই রাস্তায় গাড়ির স্টিয়ারিং ধরেন নারীরা।

২০১৮ সালের ২৪ জুন মধ্যরাতে রিয়াদের রাস্তায় ইতিহাস সৃষ্টি হয়। কয়েক দশকের নিষেধের বাধা অতিক্রম করে ছুটে চলে গাড়ি, যার স্টিয়ারিং ছিল নারীদের হাতে। এরপরই রেসিং কারের স্টিয়ারিং হাতে আরও একধাপ এগিয়ে গেলেন রীমা আল জুফালি।

জুনে লাইসেন্স পাওয়ার পর গত অক্টোবরেই প্রথম রেসে অংশ নেন তিনি। কলেজে পড়তে পড়তেই ফর্মুলা ওয়ানের প্রতি ঝোঁক বাড়ে রীমার।

তারপর রেসিং কার লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেন তিনি। ফর্মুলা কার রেসিং স্কুলে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন তিনি।

২৭ বছর বয়সী এই সৌদি তরুণী রাজধানী রিয়াদের কাছে দিরিয়াহ এলাকায় শুক্র ও শনিবার জাগুয়ার আই-পিএসিই ই-ট্রফি সিরিজে অংশ নেন। জুফালি বলেন, গত বছরই গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়। কিন্তু আমি কখনওই ভাবিনি যে, আমি পেশাগত রেসার হিসেবে অংশ নেব।

তিনি বলেন, ‘আমি যে কাজটি করছি তা সত্যিই খুব অসাধারণ। জেদ্দা থেকে আসা জুফালি যুক্তরাষ্ট্র থেকে পড়াশোনা করেছেন। তিনি এই রেসে ভিআইপি অতিথি হিসেবে অংশ নিচ্ছেন। নিজের দেশের মাটিতে রেসিং কার চালানো প্রথম নারী তিনি। এই পেশায় তার অভিজ্ঞতা মাত্র এক বছরের।’