মধ্যবয়সী নারীরা যেসব কারণে বয়সে ছোট ছেলেদের প্রতি আকৃষ্ট হয়

1733

প্রেম এবং যুদ্ধে সব কিছুই ন্যায্য। সত্যি বলতে প্রেম একটি সুন্দর অনুভুতি যা কোন বিভেদ বা সীমানা জানে না। প্রেমের ক্ষেত্রে বয়স একটি অজুহাত মাত্র, কারন প্রেম বয়স মানে না।

এই গতানুগতিক ব্যবধানে প্রেম এখনকার গল্পের ক্ষেত্রে একটা বোঝার সামিল।

কিন্তু এই ক্ষেত্রে আপনার জীবন সঙ্গিটি যদি আপনার থেকে বয়সে বড় হয় তবে ?তখন আপনার সব থেকে বড় শত্রু হয়ে উঠবে আপনার সমাজ।

সমাজ কখনই গতানুগতিক চিন্তাধারার বাইরে প্রেমকে ভাবেনি। তাই আপনি নিশ্চিত থাকুন কেউ খোঁচা দিক বা না দিক, সমাজ আপনাকে খোঁচা দেবেই।

চলুন তবে জেনে নি সেই কারন গুলো যেই জন্য মেয়েরা কম বয়েসি ছেলেদের প্রেমে পড়ে থাকে
১। বয়স্ক পুরুষদের কাঁধে দায়িত্ব প্রচুর থাকে, নিজের ভবিষ্যৎ জীবন নিয়ে এদের মাথায় চিন্তা বাসা বাঁধে।

সংসারের সমস্ত রকম সুবিধের কথা এরা খুব ভালো করেই বিচার করে থাকে। ফলে অন্যান্য উদ্দিপনা এদের কাছে ফালতু সময় নষ্ট, কিন্তু কম বয়সি ছেলেরা সব সময় উদ্দিপনায় মত্ত। ফলে এদের দিকেই আকৃষ্ট হয় মহিলারা।

২। কম বয়সি ছেলেরা খোলা মনের এবং তুলনা মুলক কম জটিলতা জানে। ফলে এই জিনিস গুলি মহিলাদের কম বয়সি ছেলদের প্রতি আকৃষ্ট হওয়ার আরেক কারন।

৩। তরুন ছেলে পুলেরা সাধারনত কম অভিজ্ঞ, যার ফলে এরা কোন কিছুর বিচার নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামায় না। চুল চেরা বিচার এদের ধাতে সয় না। অন্য দিকে বেশি বয়সের পুরুষরা সম্পর্কের চুল চেরা হিসেব চায় ফলে মুশকিলটা হয় সেখানেই।

৪। কম বয়সি ছেলেরা অনেক বেশি রোম্যান্টিক হওয়ার ক্ষমতা রাখে কিন্তু, যা মহিলা দের উৎসাহিত করে।

৫। বেশি বয়সের মহিলাদের যেহেতু আগে থেকেই কেই না কেউ থাকে, ফলে এদের প্রাক্তন এদের নতুন সম্পর্কে বিচ্ছিন্ন ভাবে জড়িয়ে থাকে।কিন্তু কম বয়সি ছেলেরা এই সম্পর্কের গুরুত্ব দিয়ে থাকে।৬। অল্প বয়সি সঙ্গির সঙ্গে বেশি বয়সি প্রেমিকাকেও অল্প বয়সি মনে করায়, যা তাদের এক অন্যতম উন্মাদনার কারন।

৭। যুবক সঙ্গী সমস্ত রকম নতুন কাজ খুব মজা ও আগ্রহের সাথে করে থাকে যা এক অন্য জগতে নিয়ে যায় বেশি বয়সি মহিলাদের।৮। যুবকদের শারীরিক গঠন বেশি বয়সি পুরুষদের তুলনায় তুলনামুলক বেশি আকর্ষণীয়, এইটিও একটি কারন।

৯। তাছাড়া যেহেতু বেশি বয়সি মহিলারা অনেক অভিজ্ঞ, তাই তাদের গ্যান কম বয়সি ছেলেদের কাছে মুল্যবান, তাই তারা মন দিয়ে সঙ্গিনীর কথা শুনে থাকে।১০। তরুনদের সাহসিকতায় মেশানো জীবন মহিলাদের আরও আকৃষ্ট করে ছেলেদের প্রতি।

এছাড়া বেশিরভাগ ছেলে মনে করে যে মধ্যবয়সী মেয়েরা অভিজ্ঞ। এবং এটা অনেকটা সত্য। কারণ তরুন মেয়েরা যৌ’ন’সম্পর্কে ভালোভাবে অভ্যস্ত না হলেও মধ্যবয়সী মেয়েরা এসব বিষয়ে পূর্বেই অনেক অভিজ্ঞ ।

মধ্যবয়সী মেয়েরা তুলনামূলকভাবে অনেক সুঠাম দেহের অধিকারী । আমেরিকায় একটি মনোবৈজ্ঞানিক জরিপে তথ্য উঠে এসেছে যে ১০০০ পুরুষের মধ্যে ৬৭২ জন পুরুষই ডেটিং এর জন্য এবং যৌ’ন’সঙ্গী হিসেবে মোটা মেয়েকে পছন্দ করে ।

জরিপটি অবিশ্বাস্য কিন্তু সত্য। ইয়াং জেনারেশনের মেয়েরা সিনেমার অভিনেত্রী, মডেলদের অনুকরণ করে নিজেকে স্লিম রাখার জন্য কম খাদ্যগ্রহণ করে। এইজন্য ম্যাক্সিমাম ১৫-২৫ বছরের মেয়েরাই চিকন স্বাস্থ্যের অধিকারী।

বর্তমানে অধিকাংশ ছেলে চিকন মেয়ে পছন্দ করছে না।এইজন্য বেশিরভাগ ছেলে মধ্যবয়সীদের দিকে ছুটছে। যৌ’ন’তার প্রতি আগ্রহ মধ্যবয়সী রমনীদের মধ্যে বেশি দেখা যায়। যা তরুণীদের মধ্যে বেশি দেখা যায় না । মধ্যবয়সী রমণীরা যৌ’ন’জীবন আনন্দময় করে রাখতে পারে বেশি । কিন্তু তরুণীরা অনভিজ্ঞ হওয়ায় এটা কিছুটা কঠিন। বেশিরভাগ ছেলে গোছালো মেয়েদের পছন্দ করে। যা মধ্যবয়সী নারীদের মধ্যে পরিলক্ষিত হয় ।