বয়স ধরে রাখার সহজ ৫টি উপায়

3124

সুস্থ, সুন্দর, তারুণ্য দীপ্ত দেখাতে কে না চায়? তারুণ্য ধরে রাখার প্রচেষ্টা করে না এমন মানুষ পাওয়া যাবে না। তবে বয়স বাড়ার সাথে সাথে শারীরিক পরিবর্তন আসে।

বয়সের ছাপ প্রথম পড়ে আমাদের মুখমণ্ডলের ত্বকে। তারপর পুরো শরীরের ত্বকে। মুখে বলিরেখার অস্তিত্ব, চুলে পাক ধরা অনেকেরই মন খারাপের কারণ হতে পারে। 

কিন্তু আমাদের চারপাশে তাকালে দেখবেন, কাউকে বয়সের তুলনায় দেখতে আরও বয়স্ক লাগে, আবার কাউকে বয়সের তুলনায় দেখতে কম বয়সী লাগে। যাদের দেখে বয়স বুঝতে পারা যায় না, তারা আসলে স্বাস্থ্যের প্রতি বেশ সচেতন। তারা কিছু নিয়ম মেনে চলে নিয়মিত। 

পাঁচটি কাজ আপনাকে বয়স থামিয়ে রাখতে সাহায্য করবে। চলুন জেনে নেয়া যাক: 

প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান
পানি পানের ক্ষেত্রে অবহেলা করলে আপনার সুস্থ ও সুন্দর থাকা সম্ভব নয়। সুস্থতার জন্য প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করা ভীষণ জরুরি। শারীরিক যেকোনো সমস্যা দূরে রাখতে অনেকটা সাহায্য করে বিশুদ্ধ পানি। প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করলে তা শরীরে পানির ঘাটতি মেটানোর পাশাপাশি শরীরে জমে থাকা বিষাক্ত উপাদান বা টক্সিন দূর করতে সাহায্য করে।

শরীর আর্দ্র থাকলে সুস্থ থাকা সহজ হয়। ত্বক আর্দ্র থাকলে টানটান ভাব বজায় থাকে। এই এই টানটান ভাব কমলেই দেখা দেয় বলিরেখা। তাই বয়স ধরে রাখতে চাইলে নিয়মিত পানি পান করতে হবে। প্রতিদিন ন্যুনতম ২ লিটার পানি পান করুন। 

খাদ্যাভ্যাস
ত্বকের প্রয়োজনীয় সকল নিউট্রিয়েন্টস আমরা খাবার থেকেই পাই। প্রতিদিনের ডায়েটে তাই এন্টি অক্সিডেন্টস সমৃদ্ধ সবুজ শাকসবজি, ফলমূল রাখতে হবে।

পরিচ্ছন্নতা
ত্বকের বিভিন্ন স্তরে ময়লা ও পলিউশনের আস্তরণ পড়ে। নিয়মিত এক্সফলিয়েশন ও ক্লিনজিং ত্বকের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখে।

নির্বিঘ্ন ঘুম
শরীর সুস্থ রাখার জন্য প্রতিদিন নির্বিঘ্ন ঘুম প্রয়োজন। একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের জন্য প্রতিদিন অন্তত সাত-আট ঘণ্টা ঘুম দরকারি। ঘুমের অন্তত ঘণ্টা দুই আগে স্মার্টফোন দূরে রাখুন।

কম্পিউটার কিংবা স্মার্টফোনের নীলচে আলো আমাদের ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। এটি ত্বকে দ্রুত বয়সের ছাপ ফেলতে পারে। অনেকে বালিশের উপর মুখ উপুড় করে ঘুমান। এতেও দেখা দিতে পারে বলিরেখা। এই ভঙ্গীতে ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে তা বাদ দিন।

নিয়মিত শরীরচর্চা
নিয়মিত শরীরচর্চা করলে তা শরীরকে ভেতর থেকে ভালো রাখে। শরীরে কোনোরকম মেদ জমতে দেবেন না। কারণ মেদ আরও অসুখের কারণ হতে পারে। নিয়মিত শরীরচর্চা করলে শরীরে রক্ত চলাচল বাড়ে, শরীরের সব কোষে অক্সিজেন পৌঁছায় ঠিকভাবে। ফলে ত্বক উজ্জ্বল হয়।

চেহারায় যেভাবে ধরে রাখবেন তারুণ্য

বয়সের ছাপ দূর করতে ছেলেরা যে কাজগুলো করতে পারেন তার একটি তালিকা: 

১. সুঠাম দেহ: আপনার শরীর যদি ঢিলেঢালা ধরনের হয় তবে আপনাকে অনেক বয়স্ক দেখাবে। তাই কম বয়সী দেখাতে চাইলে দৈহিক গড়নের প্রতি লক্ষ্য রাখুন। নিয়মিত ব্যায়াম ও পরিচর্চার মাধ্যমে শারীরিক গঠন সুঠাম রাখুন। এতে বয়স হলেও বোঝা যাবে না। চেহারার তারুণ্য ভাব বজায় থাকবে।

২. সানগ্লাসের ব্যবহার: সানগ্লাস একজন মানুষকে স্টাইলিশ করে দেয়ার পাশাপাশি বয়স কমিয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। চেহারার সাথে মানানসই সানগ্লাস ব্যবহার করুন। যারা চোখের সমস্যার জন্য চশমা ব্যবহার করেন তারা বিশেষ প্রয়োজনে চশমা ব্যবহার না করে কন্টাক লেন্স ব্যবহার করুন। চশমা ব্যবহার করলে একটু বেশি ভারিক্কী ও বয়স্ক দেখায় যে কাউকেই।

৩. চুলের যত্নে কাজ করুন: চুলের যত্ন সম্পর্কে সতর্ক হয়ে যান। চুল পড়া রোধে চুলের যত্ন নিন। চুলকে স্টাইলিশ রাখতে প্রয়োজনীয় প্রোডাক্ট ব্যবহার করুন। চুল পড়ে টাক হয়ে গেলে অনেক বেশি বয়স্ক দেখাবে।

৪. গলার ভাঁজ: একটু বয়স হয়ে গেলে গলায় ভাঁজ পড়ে, ফলে অনেক বেশি বয়স্ক মনে হয় ছেলেদের। এই সমস্যা দূর করতে কোনো স্টাইলিশ ছাঁটে দাঁড়ি রাখুন। এতে গলার ভাঁজ ঢাকা পরে যাবে।

৫. ঠোঁটের যত্ন নিন: ঠোঁটের যত্নে সতর্ক হোন। ঠোঁট শুকনো দেখালে এবং ফেটে থাকলে অথবা কালচে ভাব থাকলে বিশ্রী দেখানোর পাশাপাশি বয়স্ক দেখায়। তাই নিয়মিত ঠোঁটের যত্ন নিন। ভালো লিপবাম ব্যবহার করুন। ধূমপান ছেড়ে দিন।

৬. চুলের স্টাইলে পরিবর্তন আনুন: যদি ভালো কোনো মানানসই স্টাইলিশ ছাঁটে চুল কাটতে পারেন তবে বয়স অনেক কম লাগবে। যদি চুল পড়ে টাক হয়ে থাকে তবে একেবারে চুল ফেলে দিন। এতে টাকের তুলনায় বেশ স্টাইলিশ ও কম বয়েসি লাগবে দেখতে।

৭. সাদা চুল ঢেকে ফেলুন: যদি চুল পেকে সাদা হওয়া শুরু করে তবে চুল রঙ করতে একবারেই পিছপা হবেন না। সতর্কতার সাথে সকল সাদা চুল ঢেকে ফেলুন। এতে বয়স প্রায় ১০ বছর কমে যাবে।

৮. পিঠ সোজা করে দাঁড়ান: অঙ্গবিন্যাস সঠিক রাখুন। আপনি পিঠ বাঁকা করে দাঁড়ালে আপনাকে বয়স্ক মনে হবে। সোজা হয়ে দাঁড়ান এবং অভ্যাস করুন।

৯. সঠিক পোশাক নির্বাচন করুন: সঠিক পোশাক নির্বাচন বয়স অনেকটা কমিয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। আপনাকে কোন ধরনের পোশাকে মানাবে এবং কোন রঙে আপনাকে ভালো দেখাবে এই সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। সঠিক পোশাক নির্বাচন করলে বয়স অনেকটা কমে যাবে।

১০. ত্বকের যত্ন নিন: ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে গেলে বয়স অনেক বেশি মনে হয়। তাই ত্বককে হাইড্রেট ও ময়শ্চারাইজ করুন। ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন এবং প্রচুর পানি পান করুন।

১১. ‘বুড়ো হয়ে গিয়েছি’?: ‘বুড়ো হয়েছেন’ এই ধরনের চিন্তা বাদ দিন। আপনি নিজে মনের দিক থেকে তরুণ থাকলে তা আপনার চেহারাতেও ফুটে উঠবে।