অবৈধ উপায়ে লন্ডনে প্রবেশ চেষ্টা, বিমানের চাকা থেকে পড়ে মৃত্যু

2175

বিমানের চাকা থেকে পড়ে- কেনিয়া এয়ারওয়েজ এর বিমানের চাকা থেকে লন্ডনের মাটিতে ছিটকে পড়ে মারা গেলেন এক ব্যক্তি।

নি.. হ. ত ওই কেনিয়ার নাগরিক অ. বৈধ উপায়ে ব্রিটেনে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেছিলেন বলে মনে করছে পুলিশ।

গতকাল সোমবার কেনিয়া এয়ারওয়েজ এর একটি বিমান হিথরো বিমানবন্দরে নামার কিছু আগে, ল্যান্ডিং গিয়ার থেকে পড়ে মা. রা গেলেন এক ব্যক্তি।

জানা গিয়েছে, মাটি থেকে ৩,৫০০ উপর দিয়ে উড়ে যাওয়ার সময় ওই ব্যক্তি পড়ে যান। লন্ডনের ক্ল্যাপহ্যাম এলাকার অফার্টন রোডের এক বাড়ির বাগানে আছড়ে পড়ে তাঁর দেহ।

এক প্রতিবেশী জানিয়েছেন, গতকাল সকালে ধুপ করে কিছু পড়ার শব্দ পেয়ে দোতলায় উঠে জানালা খুলে দেখি, পাশের বাড়ির বাগানে এক অপরিচিত যুবক ঘুমোচ্ছে।

প্রথমে ভেবেছিলাম, কোনও ভবঘুরে বাড়ির বাগানে ঢুকে পড়েছে। তার শরীরে কোনও ক্ষ. ত ছিল না, পোশাকও ঠিক-ঠাক ছিল।

কিন্তু ভালো করে নজর করে বাগানের দেয়ালে র.. ক্তে. র দাগ দেখতে পাই। তখনই বুঝতে পারি, মানুষটি কোনও উঁচু জায়গা থেকে পড়ে গিয়েছে।

আকাশ থেকে যে বাড়ির বাগানে খসে পড়ে দেহটি, সেখানে তখন রৌদ্রস্নান করছিলেন বাড়ির মালিক। তাঁর থেকে মাত্র কয়েক ফিট দূরেই এসে পড়ে দেহটি। আতঙ্কিত গৃহস্বামী প্রথমে প্রতিবেশী এবং পরে পুলিশকে বিষয়টি জানান।

কবর দেয়ার পর বাড়ি ফিরে এল মৃ.. ত চাষি !…..

মানসিক সমস্যার কারণে ঘর ছেড়েছিলেন এক ব্যক্তি। তারপর পনেরদিনেরও খোঁজ মেলেনি তার। এরপর একই এলাকা থেকে একটি লা.. শ উদ্ধার করা হয়।

যেটিতে প. চ ন ধরায় ওই ব্যক্তির লা.. শ ভেবে কবর দেয় নিখোঁজ শিবান্না (৪৫) এর পরিবার। কিন্তু দেখা যায় কদিন বাদেই ফিরে আসে ওই ব্যক্তি।

তার পড়নে রঙিন পোষাক। সেই পোশাকের সঙ্গে এই ম র.. দেহে থাকা পোশাক কোনো ভাবেই মিল পাওয়া যায়নি। এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের কর্নাটকের হাসান তালুকের সালাগামের সংঘ গ্রামে। স্থানীয় পুলিশ জানায়, অপরিচিত এক ম র.. দেহ দেখে বোঝার উপায় নেই যে এটাই শিবান্না। পরিবার ভুল করতেই পারে।

এই ভেবে শিবান্নার স্ত্রী ও পরিবারকে চাপ দেন। ওই দিন সেই ম র.. দেহ গ্রামে এনে মাটিতে কবর দেয়া হয়। শ্রাদ্ধের দিন ঠিক করে, শিবান্নার নামে কার্ড ছাপিয়ে আত্মীয়দের নিমন্ত্রণও করেন তার বাবা। অনুষ্ঠানের শেষ হতেই পরিবার জানতে পারে, ৪৫ বছর বয়সী শিবান্না বেঙ্গালুরুতে এক আত্মীয়ের বাড়িতে রয়েছে। তাকে আনতে সেখানে পুরো পরিবার চলে যায়।

প্রথমে বিষয়টি মানতে নারাজ হলেও পরে শিবান্নাকে মেনে নেয় গ্রামবাসীরা। পরিবারও আপনজনকে পেয়ে বেশ খুশি। কিন্তু পুলিশের কাছ থেকে যার ম র.. দেহ এনে কবর দেয়া হয়েছিল সেই ব্যক্তির খোঁজ মেলেনি এখনও। সেই দেহ আসলে কার, সেটা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।