২৬ ডিসেম্বর দেখা যাবে বিরল অগ্নি বলয়ের সূর্যগ্রহণ !

773

বিরল সূর্যগ্রহণ- বিরল অগ্নি বলয় দেখার অপেক্ষায় আছে মানুষ। ২৬ ডিসেম্বর সূর্যগ্রহণের মধ্য দিয়ে বিরল অ”গ্নি বলয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ মিলবে পৃথিবীবাসীর। ২৬ ডিসেম্বর এমন এক সূর্যগ্রহণ দেখবে বিশ্ব, যা শেষবার মানুষ দেখেছিল ১৭২ বছর আগে।

এ গ্রহণের সময় সূর্যের চারপাশে থাকবে আগুনের বলয়। বিজ্ঞানীরা যাকে বলেন ‘রিং অব ফায়ার’।

মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানান, আড়াই ঘণ্টা ধরে চলবে এই মহাজাগতিক দৃশ্য। সূর্যকে ৯০ শতাংশের বেশি ঢেকে ফেলবে চাঁদ, যা খালি চোখেই অবলোকন করতে পারবেন পৃথিবীবাসী।

দৃশ্যটি সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সবচেয়ে ভালো দেখা যাবে।

একটি মহাকাশীয় বস্তু দেখার সময়, যদি অপর একটি মহাকাশীয় বস্তুর তা আড়ালে চলে যায়, তখন গ্রহণ সংঘটিত হয়।

এরূপ ঘটনা ঘটার সময়, একটি মহাকাশীয় বস্তুর সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে আড়ালে চলে যেতে পারে। যখন একটি মহাকাশীয় বস্তু সম্পূর্ণভাবে, অপর মহাকাশীয় বস্তুর আড়ালে চলে যায়, এবং তখন তৃতীয় মহাকাশীয় বস্তু থেকে তাকে পূর্ণগ্রাস বলা হয়।

একইভাবে যদি মহাকাশীয় বস্তুটি যদি আংশিকভাবে আড়ালে চলে যায়, তখন তাকে আংশিক গ্রাস বা খণ্ডগ্রাস বলা হয়।

গ্রহণের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হয় তৃতীয় একটি মহাকাশীয় বস্তু থেকে। যেমন সূর্য, পৃথিবী এবং চন্দ্র নিয়ে যে গ্রহণ সংঘটিত হয়, তা পর্যবেক্ষণ করা হয় পৃথিবী থেকে।

চন্দ্র, সূর্য, ও পৃথিবী নিয়েই শুধু গ্রহণের বিষয়টি ঘটে না। এর বেশির ভাগই সাধারণ মানুষের কাছে অজ্ঞাত থেকে যায়। পৃথিবীর সাধারণ মানুষের কাছে সবচেয়ে পরিচিত দুটি গ্রহণ হলো― সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণ।

সৌরজগতে সূর্যকে ঘিরে আবর্তিত হচ্ছে পৃথিবী, আবার পৃথিবীকে ঘিরে আবর্তিত হচ্ছে চন্দ্র। এই বিচিত্র আবর্তন চলার সময় কখনো কখনো সূর্য, পৃথিবী এবং চন্দ্র একই সরল রেখাতে অবস্থান নেয়। আর তখনই চন্দ্রগ্রহণ বা সূর্যগ্রহণের সৃষ্টি হয়।

বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চন্দ্রগ্রহণের চেয়ে সূর্যগ্রহণ বেশিবার হয়। প্রতি সাতটি গ্রহণের মধ্যে সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণের অনুপাত ৫:২ বা ৪:৩।

এই আবর্তনের সূত্রে, যখন সূর্য ও পৃথিবীর মাঝখানে চন্দ্র অবস্থান নেয়, তখন পৃথিবীপৃষ্ঠের পর্যবেক্ষকের দর্শন-সাপেক্ষে সূর্য চন্দ্র-এর পেছনে আড়ালে চলে যায় এবং তখন সূর্য গ্রহণ ঘটে। আবার মঙ্গলবার ১৭২ বছর আগের সেই তৃপ্তি অনুভব করবে।

রাস্তায় লাফিয়ে বেড়াচ্ছে শত শত মাছ !

রাস্তায় মাছ লাফাতে দেখে লোকজন প্রথমে অবাক হয়ে যান। তারপর সবাই ব্যস্ত হয়ে পড়েন মাছ ধরতে।

কেউ কেউ ব্যাগ আর বালতিও নিয়ে আসেন মাছ রাখতে। কেউ আবার মোবাইলের ক্যামেরা অন করে ভিডিও করতে শুরু করেন।

পরে জানা যায়, অতিরিক্ত ওজনের মাছ বোঝাই একটি ট্রাক মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) নি’য়’ন্ত্র’ণ হারিয়ে উল্টে যায়। ট্রাকে থাকা জ্যান্ত মাছগুলো রাস্তায় লাফাতে শুরু করে।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কানপুরের আমরাপুরে। ব্যস্ত রাস্তায় মাছ ধরার এমন দৃশ্যের ভিডিও অনলাইনে ভা”ই”রা”ল হতে খুব বেশি সময় লাগেনি।

অনেকেই ভিডিওটি দেখে মজা পেয়েছেন। কেউ কেউ আবার বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীর প্রতি উদ্বিগ্নতাও প্রকাশ করেছেন।