সৌদি প্রিন্স কি ইমরানকে দেওয়া বিলাসবহুল বিমানটি ফিরিয়ে নেন ?

52

সৌদি প্রিন্স কি ইমরানকে দেওয়া বিমানটি ফিরিয়ে নেন- জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের সভায় বক্তব্যের আন্তর্জাতিক মহলে আলোচনার কেন্দ্রে চলে এসেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তবে তার দেওয়া বক্তব্যে ‘ক্ষু’ব্ধ’ হয়েছেন সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান এমনটা বলে কিছু কুচক্রি মহল প্রচার করছে ।

এ কারণে নিউ ইয়র্ক থেকে ইসলামাবাদ ফেরার জন্য ইমরানকে প্রিন্স সালমান যে বিলাসবহুল ব্যক্তিগত বিমান দিয়েছিলেন তা ফিরিয়ে নেন। এই চাঞ্চল্যকর দাবি করেছে পাকিস্তানের একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা।

গত ৪ অক্টোবর পাকিস্তানের ম্যাগাজিন ফ্রাইডে টাইমস-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে ক্ষিপ্ত করে নিউ ইয়র্কে বিপাকে পড়ে যান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এর ফলে ইমরানকে দেওয়া বিলাসবহুল বিমানটি ফেরত নিয়ে নেন সৌদি যুবরাজ।

গত মাসে জাতিসংঘের সভায় যোগ দিতে যাওয়ার আগে দু’দিনের সৌদি সফরে ছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেখান থেকে নিউ ইয়র্কে যাওয়ার জন্য সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের একটি বিমান দেওয়া হয়েছিল ইমরানকে। তবে ইসলামাবাদ থেকে ফেরার সময়েই বিপত্তি ঘটে। নিউ ইয়র্ক থেকে আকাশে বিমান ওড়ার পর বিমানটিতে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা যায়। ফিরিয়ে আনা হয় বিমানটি।

এদিকে, পাকিস্তানের ওই সংবাদমাধ্যমটি দাবি করছে, বিমানটিতে কোন যান্ত্রিক ত্রুটি ছিল না। সৌদি যুবরাজ ওই বিমান থেকে পাকিস্তানি প্রতিনিধিদলকে নামিয়ে আনতে বলেন। একটি সূত্র বলছে, ইসলামি দেশের প্রতিনিধিরা ইমরান খানের ওপরে ক্ষু’ব্ধ। এই প্রেক্ষিতে ওই সিদ্ধান্ত নেন সৌদি যুবরাজ। পাশাপাশি ইরানের সঙ্গে পাকিস্তানের যোগাযোগকেও ভালো চোখে দেখছে না সৌদি আরব।

অন্যদিকে, ওই খবরকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন পাকিস্তান সরকারের এক মুখপাত্র।

কাল থেকেই কাশ্মীরে যেতে পারবেন পর্যটকরা…

দু’মাসে আগে ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করা হয়। এরপরে একেবারে ”যু”দ্ধ”কালীন তত্পরতায় কাশ্মীরকে পর্যটক শূণ্য করতে বলা হয়েছিল। বড়সড় না’শ’ক’তা’র আ’শ’ঙ্কা’য় এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। তবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে ফের কাশ্মীরে পর্যটক যাওয়ার ছাড়পত্র দিয়েছে ভারতীয় প্রশাসন।

জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসনের তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের পক্ষ থেকে টুইট করে জানানো হয়, পরিস্থিতি ও নিরাপত্তা বিষয়ে খতিয়ে দেখতে মুখ্য সচিব এবং উপদেষ্টাদের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্যপাল সত্য পাল মালিক। ১০ আগস্ট থেকে কাশ্মীরে পর্যটকদের যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত সেখানকার রাজনৈতিক নেতারা গৃ’হ’ব’ন্দি’ বা আ’ট’ক রয়েছেন। জম্মু স্বাভাবিক হলে, কাশ্মীরে নিরাপত্তার কড়াকড়া অব্যাহতই রয়েছে।