সুযোগ পেয়েও টাকার অভাবে বুয়েটে ভর্তি হতে পারছে না কাওসার !

58

বুয়েটে ভর্তি হতে পারছে না কাওসার- বরগুনার আমতলী উপজেলার মেধাবী ছাত্র কাওসার আহমেদ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ভর্তি পরীক্ষায় টিকলেও পরিবারের আর্থিক দৈন্যদশার কারণে ভর্তি হতে পারছেন না। আমতলীর কুকুয়া ইউনিয়নের কৃষক আবু বকর মোল্লা ও শাহিরুন বেগম দম্পতির তিন ছেলের মধ্যে কাওসার বড়।

খেয়ে না খেয়ে পড়াশোনা করছে হতদরিদ্র কৃষক পরিবারের সন্তান কাওসার আহমেদ। টিউশনি করে নিজের চেষ্টায় পড়াশোনা করে স্বপ্নের বুয়েটসহ ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ার সুযোগ পেয়েছে এই মেধাবী ছাত্র। অর্থাভাবে স্বপ্নের বুয়েটে ভর্তি হতে পারছেন না।

মেধাবী কাওসার আহমেদ বলেন, দরিদ্র কৃষক হওয়ায় সংসারের ব্যয় মিটিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানোর সামর্থ্য নেই বাবার। নিজে প্রাইভেট পড়িয়ে যা আয় করেছি তা খুবই সামান্য। আমাকে বিনা বেতনে পড়িয়েছেন সরকারি কলেজের স্যাররা।

পরিবারে আরও দুই ভাই পড়াশোনা করে। আমি যে বুয়েটে ভর্তি হব সেই টাকা আমার পরিবার দিতে পারবে না। আমার বাবার সেই সামর্থ নেই। জানা গেছে, ২০১৭ সালে চুনাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৪.৯৫ পায় কাওসার।

২০১৯ সালে পটুয়াখালী সরকারি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ লাভ করে। কৃষক বাবা আবু বকর মোল্লা বলেন, আমার সামান্য আয়। তিন ছেলেকে পড়াশোনা করানোর মতো টাকা আমার নেই। ছেলে (কাওসার) নিজের চেষ্টায় পড়াশোনা করছে।

পটুয়াখালী সরকারি কলেজের অধ্যাপক ধীমান বলেন, কাওসার অনেক মেধাবী। ওর পাশে সমাজের বিত্তবানদের দাঁড়ানো উচিত।

সে সুযোগ পেলে সামনে ভালো কিছু করতে পারবে। কাওসারের কৃষক বাবা সরকার, সমাজের দানশীল বিত্তবান ও প্রবাসীদের কাছে তার লেখাপড়ার জন্য আর্থিক সহায়তা কামনা করেছেন। কাওসারের সঙ্গে যোগাযোগ- ০১৭৬৬ ১৩২৮২৩ ৫ (ডাচ্-বাংলা)।

দ্বিতীয় বিয়ে করলেন হুমায়ুন আহমেদের প্রথম স্ত্রী

দ্বিতীয়বারের মত বিয়ে করলেন নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের প্রথম স্ত্রী গুলতেকিন খান। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আফতাব আহমেদের সঙ্গে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। গুলতেকিনের পারিবারিক সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহে গুলতেকিনের বনানীর বাসায় ঘরোয়াভাবে তাদের বিয়ের আয়োজন করা হয়। বিয়েতে দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সূত্র জানায়, গুলতেকিনের মতো আফতাব আহমেদেরও এটি দ্বিতীয় বিয়ে। প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বেশ কয়েক বছর আগে তারও বিয়ে বিচ্ছেদ হয়।

আফতাবের একমাত্র ছেলে লন্ডনে পড়াশোনা করছেন। হুমায়ূন আহমেদের সঙ্গে গুলতেকিনের দীর্ঘ ২৭ বছরের দাম্পত্য বিচ্ছেদে গড়ায় ২০০৪ সালে। হুমায়ূন-গুলতেকিনের তিন কন্যা নোভা, শীলা, বিপাশা ও এক পুত্র নুহাশ। গুলতেকিনের চার সন্তানের সম্মতিতে এই বিয়ে হয়েছে বলেও সূত্র নিশ্চিত করেছে।

উল্লেখ্য, বিপুল জনপ্রিয় কথাশিল্পী হুমায়ূন আহমেদ নিজের লেখালেখিতে অনেক সময়ই ব্যক্তিগত প্রসঙ্গের অবতারণা করতেন। সেই সূত্রেই বাঙালি পাঠকদের কাছে আশি ও নব্বই দশকে গুলতেকিন অতি পরিচিত এক জীবন্ত চরিত্র হয়ে ওঠেন।

১৯৭৬ সালে ১৫ বছরের কিশোরী গুলতেকিনকে ভালোবেসে বিয়ে করেন সে সময়ের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কথাশিল্পী হুমায়ূন আহমেদ। দীর্ঘ ২৭ বছরের সংসার করার পর ২০০৪ সালে গুলতেকিনকে ডিভোর্স দেন হুমায়ুন আহমেদ। পরের বছর তিনি বিয়ে করেন অভিনেত্রী ও গায়িকা মেহের আফরোজ শাওনকে।