সুন্দরী হলেও যে ৫ ধরনের মেয়েকে কখনও বিয়ে করা উচিৎ নয়

5962

বিয়ে মানুষের জীবনে এমন এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় যেখানে এক নতুন জীবনে প্রবেশ হয়। সংসারের প্রতি দ্বায়িত্ব থাকে, স্বামী স্ত্রীর একসঙ্গে সুখ দুঃখে পথ চলার অঙ্গীকার থাকে।

এই বিয়ে দুটি মনের মিলন। তাই বিয়ে নিয়ে একটা ভয় সবসময় কাজ করে যে তার ভবিষ্যতে সঙ্গিনী কেমন হবে।

আজকের এই লেখা চান্যকের নীতি সংক্রান্ত যেখানে তিনি জানিয়েছিলেন মেয়েদের কিছু গুন সম্পর্কে। এই বৈশিষ্ট্য যদি কোনো মেয়ের মধ্যে দেখা যায় তাহলে তাদের বিয়ে না করাই উচিত।

চানক্যের কাছে কোনো নারী রূপে সুন্দরী বা অসুন্দরী এই বিষয় প্রাধান্য পায় না। তার মতে, একটি মেয়েকে বিয়ে করতে গেলে অন্তরের গুনকে জানতে হবে।

1) যেই নারীর সাথে আপনার পরিচয় বা যোগাযোগ রয়েছে, আর আপনি তার সম্পর্কে কিছুটা অবগত সেই ধরনের নারী যদি আপনার কাছে নিজের বিষয়ে কিছু গোপন করেন ও মিথ্যা বলেন, তাহলে সে আপনার মত প্রিয়জন হোক না কেন তাকে ত্যাগ করুন‌।

কারন সম্পর্কে স্বচ্ছতা থাকা প্রয়োজন, মিথ্যা কথা সম্পর্কে বিষ হিসেবে কাজ করে।

2) বিয়ে করার আগে তার পরিবার পরিজন সম্পকে জানুন। যদি এই বিষয়টিকে উপেক্ষা করেন মনে হয় তারা খারাপ হলেও আপনার প্রিয়জন ভালো তাহলে সেটি ভুল। কারন একজন তার পরিবারের থেকে প্রথম শিক্ষা পায়। তাই সব কিছু বিবেচনা করুন।

3) খুব সুন্দর ফুলে যেমন কাজের আক্রমণ বেশী হয়, তেমনি বেশী সুন্দরী মহিলাকে বিয়ে করবেন না
বিয়ের পরবর্তীতে তারা ঠিক রাখতে পারেন না নিজেকে পরকীয়ার সম্ভবনা বেড়ে যেতে পারে। তাই সুন্দর মনের দিকে নজর দিন।

4) প্রত্যেক মানুষের মধ্যে ভালো খারাপ আছে তাই যারা কেবল আপনার কাছে নিজের ভালো গুনটিকে উপস্থিত করে তাহলে তাদের এড়িয়ে চলুন।

5) যে মেয়ে অকপটে সরাসরি সবার সামনে ঝগড়া করে তাদের বিয়ে করবেন না।

মোটা মেয়েদের বিয়ে করার অনেক সুবিধা আছে। এই গোপন তথ্যগুলি জানলে আপনি চমকে যাবেন।

বর্তমান যুগে বেশিরভাগ ছেলেরাই স্লিম ফিগারের মেয়েদের পছন্দ করে। ছেলেরাও মেয়েদের সামনে নিজেদের আকর্ষিত করার জন্য নিজেদের সব দিক থেকে ফি’ট রাখে।

সবার পছন্দ কখনোই সমান হয়না, কেউ রোগা মেয়েদের পছন্দ করে কেউ আবার মো’টা মে’য়ে পছন্দ করে। পছন্দ করত সম্পূর্ণ নিজেদের ও’পর। কিন্তু আপনারা অনেকেই জানেন না রো’গা মে’য়েদের থেকে মো’টা মে’য়েরা বেশি সুন্দর হয়।

মো’টা মে’য়েদের বিয়ে করলে অনেক সুবিধা পাওয়া যায়। কারণ মো’টা মে’য়েরা সবসময় খুশি থাকতে ভালোবাসে এবং এরা মনের দিক থেকেও খুব সরল।

এরা তাদের চারিপাশের মানুষদেরও খুশি রাখে। মো’টা মে’য়েরা খুব ইমোশনাল হয় তারা বুদ্ধির থেকে বেশি মনের কথা শোনেন। এক গবে’ষণায় দেখা গেছে রো’গা মে’য়েদের বিয়ে করলে বেশি খুশি থাকা যায়।

আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক মো’টা মে’য়েদের বিয়ে করার সুবিধাগুলি।

১)মো’টা মে’য়েরা শুধুমাত্র নিজের কথা ভাবেনা, পরিবার এবং স্বা’মীর গুরুত্ব ও তাদের কাছে অনেক বেশি।

এরা স্বা’মীদের অনেক শ্রদ্ধা করেন। শুধুমাত্র স্বা’মী নয় শশুরবাড়ির সমস্ত লোকেদেরই সম্মান করেন। সবসময় স্বা’মী এবং পরিবারকে হাসি খুশি রাখার চেষ্টা করেন।

২) বিয়ের পর মে’য়েদের অনেক দায়িত্ব বেড়ে যায়। নিজের বাড়িতে কখনোই কাজ করতে হয়নি কিন্তু শশুরবাড়িতে তাকে সমস্ত কাজ করতে হবে। বলা হয়, রো’গা মে’য়েদের তুলনায় মো’টা মে’য়েরা খুব তাড়াতাড়ি তাদের সমস্ত দায়িত্ব বুঝে যায়। এরা নিজের দায়িত্ব সঠিকভাবেই পালন করেন। অন্যদের সেবা করতে খুবই ভালোবাসেন।

৩) রো’গা মে’য়েদের থেকে মো’টা মে’য়েরা বেশি বুদ্ধিমতী হয়। আপনারা অনেকেই ভাবেন রো’গা মে’য়েরা বেশি বুদ্ধিমতী হয়। কিন্তু তা সম্পূর্ণ ভু’ল ধারণা।

মো’টা মে’য়েদের মধ্যে কোনো অলসতা থাকে না। যেকোনো কাজই আ’নন্দে করে ফে’লে। যতই কঠিন কাজ হোক না কেন এরা সবাই অল্প সময়ের মধ্যে করে দেয়।

৪) মো’টা মে’য়েরা রান্নার দিক থেকেও রো’গা মে’য়েদের তুলনায় বেশি পারদর্শী। এরা নিজের খাওয়ার থেকে পরিবারের লোকেদের ঠিক মতো খাওয়া হলো কিনা সেই দিকেও ধ্যান রাখে। যেটা রো’গা মে’য়েদের মধ্যে থাকে না এরা শুধুমাত্র নিজেরদের কোথায় ভাবে।