মানবদেহের যে ক্ষতি হয় ওষুধ প্রয়োগ করা গরুর মাংস খেলে

226

ওষুধ প্রয়োগ করা গরুর মাংস- ইসলাম ধর্মের অনুসারীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসবের মধ্যে গুরুত্বপর্ণ একটি উৎসব হল ঈদুল আযহা বা কোরবানির ঈদ। ঈদুল আযহা হচ্ছে ত্যাগের উৎসব। এই উৎসবে মুসলমানেরা স্ব স্ব আর্থিক সামর্থ্য অনুযায়ী উট, গরু, ছাগল, ভেড়া ও মহিষ আল্লাহর নামে কোরবানি করে।

এ দিকে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর বলছে ঈদুল আযহাকে কেন্দ্র করে ১ কোটি ১৮ লাখ গবাদি পশু প্রস্তুত আছে। তারই ধারাবাহিকতায় গ্রামাঞ্চলের খামারিরা এখন পুরোদমে ব্যস্ত সময় পাড় করছে কোরবানির পশুকে পরিচর্চার জন্য। কিন্তু ঈদুল আযহাকে কেন্দ্র করে এক শ্রেণির অসাধু খামারিরা গরুকে মোটাতাজা করার জন্য নিষিদ্ধ ওষুধ প্রয়োগ করেছে। যা মানবদেহের জন্য খুবই ভয়াবহ।

গরুকে দ্রুত মোটা তাজা করার জন্য স্টেরয়েড গ্রুপের ওষুধ, যেমন ওরাডেক্সন, প্রেডনিসোলন, ডেকাসন,ইত্যাদি সেবন করিয়ে অথবা ডেকাসন, ওরাডেক্সন স্টেরয়েড ইনজেকশন দিয়ে গরুকে মোটাতাজা করা হয়। এ ছাড়া হরমোন প্রয়োগ (যেমন ট্রেনবোলন, প্রোজেস্টিন, টেস্টোস্টেরন) করেও গরুকে মোটা তাজা করা হয়।

এই সব নিষিদ্ধ ওষুধ মানবদেহের কতটা ক্ষতিকর তা জানিয়েছেন ডাঃ আল-ওয়াজেদুর রহমান। সুত্র-বি ডি ২৪ লাইভ।

তার চুম্বক অংশ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল-

১) বয়স্ক মহিলা কিংবা পরুষদের ক্ষেত্রে হারের ক্ষয় বাড়তে পারে।

২) অনেক দিন এ রকম ইনজেকশন দেওয়া গরুর মাংস খেলে পেটে গ্যাসের সমস্যা হতে পারে।

৩) মহিলারদের ক্ষেত্রে পিরিয়ড জনিত সমস্যা হতে পারে।

৪) গরুর মতো মানুষেরও ওজন বৃদ্ধি পেতে পারে। আর ওজন বৃদ্ধি পেলে রক্তচাপ বেড়ে যাবে, যার কারণে উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, অনিদ্রা, অস্থিরতাসহ নানা রোগের সৃষ্টি করে। সুত্র-বি ডি ২৪ লাইভ।

ঈদুল আজহার সম্ভাবনা ১২ আগস্ট

আগামী ১২ আগস্ট পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সোসাইটি (বিএএস)। সংস্থাটির পক্ষ থেকে আজ বুধবার প্রেস সেক্রেটারি মামুন আহমেদ শরীফ প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ১ আগস্ট সকাল ৯টা ১২ মিনিটে বর্তমান চাঁদের অমাবশ্যা কলা পূর্ণ করে নতুন চাঁদের জন্ম হবে। চাঁদটি ওইদিন সন্ধ্যা ৬টা ৪১ মিনিটে সূর্যাস্তের সময় দিগন্ত রেখা থেকে ৪ ডিগ্রি উচ্চতায় ২৮৮ ডিগ্রি দিগংশে অবস্থান করবে এবং ২৩ মিনিট অবস্থান করে সন্ধ্যা ৭টা ৪ মিনিটে অস্ত যাবে।

এদিন চাঁদের কোনো অংশ আলোকিত থাকবে না, ফলে দেশের আকাশে চাঁদ দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। চাঁদটি পরদিন ২ আগস্ট, শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৪১ মিনিটে সূর্যাস্তের সময় দিগন্ত রেখা থেকে ১৫ ডিগ্রি উচ্চতায় ২৭৯ ডিগ্রি দিগংশে অবস্থান করবে এবং প্রায় ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট দেশের আকাশে অবস্থান শেষে সন্ধ্যা ৭টা ৫৬ মিনিটে ২৮৬ ডিগ্রি দিগংশে অস্ত যাবে।

এই সময় চাঁদের ৩% অংশ আলোকিত থাকবে এবং দেশের আকাশ মেঘমুক্ত পরিষ্কার থাকলে একে বেশ স্পষ্টভাবেই দেখা যাবে। এই সন্ধ্যায় উদিত চাঁদের বয়স হবে ৩৩ ঘণ্টা ২৯ মিনিট এবং সবচেয়ে ভালোভাবে দেখা যাবে সন্ধ্যা ৭টা ১৪ মিনিটে।

সুতরাং ইসলামী নিয়ম অনুযায়ী আগামী ২ আগস্ট সন্ধ্যায় নতুন চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ৩ আগস্ট থেকে আরবি ১৪৪০ হিজরির ‘জিলহজ’ মাসের গণনা শুরু হবে এবং আগামী ১২ আগস্ট পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হবে।