পার্কে বসে অ সামাজিক কাজ, শতাধিক তরুণ-তরুণী ধরা

148

পার্কে বসে অ সামাজিক কাজ- স্কুল-কলেজ ফাঁকি দিয়ে ফরিদপুর পৌর শেখ রাসেল শিশু পার্কে বসে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগে শতাধিক তরুণ-তরুণী ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীকে আ ট ক করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রোববার দুপুরে পৌর শেখ রাসেল শিশু পার্কে অভিযান চালিয়ে তাদের আ ট ক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের একটি দল। পরে আটকদের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে তাদের অভিভাবকদের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, স্কুল-কলেজ ফাঁকি দিয়ে পৌর শেখ রাসেল শিশু পার্কে বসে অসামাজিক কার্যকলাপ চালানো হচ্ছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার বেলা ১টার দিকে ফরিদপুর পৌর শেখ রাসেল শিশু পার্কে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের একটি দল।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের এনডিসি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. বায়েজিদুর রহমান। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাকিবুজ্জামান, কামরুল ইসলাম সোহাগ ও তিথি মিত্র উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানকালে শেখ রাসেল শিশু পার্কের ভেতর বিভিন্ন স্থান থেকে অ সামাজিক কার্য কলাপে জড়িত শতাধিক তরুণ-তরুণী ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীকে হাতে নাতে আ ট ক করা হয়। এদের মধ্যে বেশির ভাগই স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী। পরে আ ট কদের কাছ থেকে মুচলেকা দিয়ে অভিভাবকদের ডেকে এনে তাদের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. বায়েজিদুর রহমান বলেন, পার্কের ভেতরে অ শ্লী ল কার্য কলাপের অভিযোগে অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে শতাধিক তরুণ-তরুণীকে আ ট ক করা হয়। এদের বেশিরভাগই স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী। আ ট কদের সতর্ক করে তাদের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে অভিভাবকদের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ফরিদপুর শেখ রাসেল শিশু পার্কে দীর্ঘদিন ধরে অ সামাজিক কার্যকলাপ চলে আসছিল। শহরের নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় নির্মিত শেখ রাসেল শিশু পার্কে বিনোদনকে পুঁজি করে একদিকে যেমন দর্শনার্থীদের পকেট ফাঁকা হচ্ছে অপরদিকে বিনোদনের নামে পার্কের ভেতরে অ সামাজিক কার্যকলাপ চলছে।

পার্কের ভেতরে যুগলদের অ সামাজিক কার্যকলাপে পরিবার-পরিজনদের নিয়ে বিপাকে পড়তে হয় দর্শনার্থীদের। অভিযোগ রয়েছে অর্থের বিনিময়ে তরুণ-তরুণীদের বিশেষ সুযোগ করে দেয় পার্ক কর্তৃপক্ষ।

কলেজ ক্যাম্পাসে যুবকের ঝুলন্ত লা.. শ..

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে হৃদয় হোসেন (২১) নামে এক যুবকের ঝুলন্ত ম র দে হ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ এটিকে আ ত্ম হ.. ত্যা বলে ধারণা করছে। রোববার সকালে সিংগাইর ডিগ্রী কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ওই যুবকের ম র দে হ উদ্ধার করা হয়। হৃদয় হোসেন সিংগাইর উপজেলা সদরের কলেজ পাড়া এলাকার জাহিদ হোসেনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সকালে কলেজে প্রাঙ্গণে শহীদ মিনারে পাশের একটি গাছে হৃদয়ের ম র দে হ ঝুলতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ তার ম র দে হ উদ্ধার করে ম য় না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

সিংগাইর থানা পুলিশের ওসি খন্দকার ইমাম হোসেন জানান, প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে ওই যুবক আ ত্ম হ.. ত্যা করেছে। তবে ম য় না তদন্তের রিপোর্ট পেলেই বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। তিনি আরও জানান, হৃদয় রাতে বাড়িতেই ঘুমিয়ে ছিল। রাতের কোনো এক সময় সে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসে।