না.গঞ্জ পুলিশের আগে সৎ সাহস ছিল না: এসপি হারুন

105

পুলিশের আগে সৎ সাহস ছিল না- নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) হারুন অর রশীদ বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ পুলিশের আগে সৎ সাহস ছিল না। পুলিশ যে কারো বিরুদ্ধে কারো মামলা নেবে, কারো বিরুদ্ধে অভিযান ঘোষণা করবে এমনটা ছিল না।

তিনি বলেন, এখন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ অভিযোগ নিতে শিখেছে অপরাধীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে শিখেছে। গতকাল বুধবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসপি হারুন অর রশীদ এসব কথা বলেন। এর আগে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের নতুন কার্যালয় উদ্বোধন করেন তিনি।

প্রেস ব্রিফিংয়ে এসপি হারুন বলেন, প্রতিটি সাংবাদিক আমাদের সহযোগিতা করছেন। আপনাদের সহযোগিতার কারণেই নারায়ণগঞ্জে যে কাজটি ধরেছে সেটাই সফল হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ পুলিশ আগে এরকম ছিল না। তিনি বলেন, ডিবি অফিসটা আলাদা থাকার কারণে ডিবির বিরুদ্ধে অভিযোগ আসতো।

দীর্ঘ দিন পরে আমরা ডিবি অফিস এসপি অফিসের চারতলায় স্থানান্তর করেছি। আশা করি মানুষ তার বিচারের জায়গাটা নিশ্চিত হতে পারবে। এসপি বলেন, ডিবির কোনো কর্মকর্তা অপরাধ করলে আমাকে জানাবেন আমি ব্যবস্থা নেব। আগামী দিনগুলোতে ডিবির কার্যক্রম আরও জোরদার করবো।

আমরা যে কাজটি করেছি সেটার ফিডব্যাক নিতে আমরা প্রতিদিনই বসবো। তিনি বলেন, ঈদগাহে নামাজ পড়াকে নিয়ে যে কোন্দাল ছিল সেটা নিয়েও আমরা কাজ করেছি। ঈদ জামাত নিয়ে কেউ যেন গ্রুপিং না করে আমরা সেটাও দেখছি। নাগরিকের যত ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন তা করার জন্য আমরা প্রস্তুত।

ঈদের জন্যও আমরা পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দিচ্ছি। আমরা চাই সাধারণ মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে ঈদ পালন করুক।

সুত্র-যুগান্তর।

এবার কমলাপুর থেকে ছাড়ছে ৩ ঈদ স্পেশাল ট্রেন

পবিত্র ঈদুল আজহায় ৩৭টি আন্তঃনগর ট্রেনের সঙ্গে এবার যুক্ত হচ্ছে তিনটি স্পেশাল ট্রেন।কমলাপুর থেকে যে তিনটি স্পেশাল ট্রেন চলবে, তা হলো- দেওয়ানগঞ্জ ঈদ স্পেশাল, খুলনা ঈদ স্পেশাল ও লালমনি ঈদ স্পেশাল।

ঈদের আগে ও পরে চলবে এ ট্রেনগুলো। আজ বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে তিন রুটে এ ট্রেন চলাচল। রেলসূত্র জানায়, রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে বৃহস্পতিবার তিনটি স্পেশাল ট্রেনসহ ৩৭টি আন্তঃনগর ট্রেন ছেড়ে যাবে।

আর বিভিন্ন রুটে ১৫টি মেইল ট্রেন চলবে। আন্তঃনগর ও মেইল মিলে প্রায় সাড়ে ৫৯ হাজার আসন রয়েছে।

এদিকে আজ বৃষ্টির ভোগান্তির মধ্যে হাসিমুখে বাড়ি ফিরছেন ঘরমুখো মানুষ। স্বজনদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে বাড়ি ফেরার তাড়ায় তাদের মুখে ছিল না কোনো ভোগান্তির ছাপ। কমলাপুর রেলস্টেশনের ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক বলেন, ঘরমুখো যাত্রীরা যাতে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত না হন, এ জন্য ট্রেনে এডিস মশা নিধনে ওষুধ দেয়া হয়েছে।

যাত্রীদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে কাজ করছি আমরা। এবার ট্রেন অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে সঠিক সময়ে ছেড়ে যাচ্ছে। গত ৩০ জুলাই যারা ট্রেনের আগাম টিকিট কিনেছেন, তারাই বৃহস্পতিবার যাত্রা করছেন। এ ছাড়া ঈদ শেষে ৫ আগস্ট দেয়া হবে ১৪ আগস্টের ফিরতি অগ্রিম টিকিট।

৬ আগস্ট দেয়া হবে ১৫ আগস্টের, ৭ আগস্ট দেয়া হবে ১৬ আগস্টের, ৮ আগস্ট ১৭ আগস্টের এবং ৯ আগস্ট ১৮ আগস্টের অগ্রিম টিকিট দেয়া হবে।