নভোচারী হাজ্জা’র মহাকাশ থেকে পাঠানো পবিত্র কাবার ছবি !

9206

পবিত্র কাবার ছবি- হাজ্জা আল মানসুরি সংযুক্ত আরব আমিরাতের মহাকাশ নভোচারী । তিনি গত ২৫ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতের সময় বিকেল ৫টা ৫৭ মিনিটে কাজাখিস্তানের বাইকনুর কসমোড্রোম থেকে ‘সুয়ুজ এমএস-১৫ এর মাধ্যমে মহাকাশে যাত্রা শুরু করেন।

আজ স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ৩৪ মিনিটে মহাকাশ থেকে পৃথিবীর বুকে তার ফিরে আসার কথা।

মহাশূন্যে ওঠার পর হাজ্জা আল-মানসুরি আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন থেকে কাবা শরিফ, মসজিদ আল-হারামসহ পবিত্র মক্কা নগরীর একটি সুন্দর ছবি তুলেছেন। মহাকাশ থেকে পবিত্র কাবা শরিফসহ কয়েকটি ছবি নিজের ইন্সটাগ্রাম ও টুইটারে শেয়ার করেছেন হাজ্জা।

হাজ্জা আল-মানসুরি পৃথিবী থেকে ৩৫০ কিলোমিটার ওপর থেকে ছবিটি তুলেছেন। মহাকাশ থেকে পবিত্র কাবার দিকে তাকিয়ে ছবি তোলার পাশাপাশি হাজ্জা ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন-

‘মুসলমানদের হৃদয়ে বসবাসকারী স্থান’ আসলেই পবিত্র কাবার দিকে দৃষ্টি পড়লে মুসলমানদের হৃদয়ের স্পন্দন বেড়ে যায়।

এর আগে গত মঙ্গলবার রাতেও তিনি মহাকাশ থেকে আরব উপদ্বীপের একটি ছবি পোস্ট করেছেন। যা দেখতে অসম্ভব সুন্দর লাগছিল। সংযুক্ত আরব আমিরাতের এ স্বপ্নটি বাস্তবায়ন করতে হাজ্জার অবিরাম প্রচেষ্টার ভূয়সী প্রশংসা করেছে দেশটি।

মহাকাশে নভোচারী হাজ্জা আল-মানসুরিকে তার সহকর্মীদের সঙ্গে আরবি পোশাকেও দেখা গিয়েছে।

এখন পর্যন্ত যে কয়জন মুসরিম মহাকাশে গিয়েছেন তাদের একজন গর্বিত সদস্য হলেন হাজ্জা আল-মানসুরি। মু’সলিম’দের মধ্যে যারা মহাকাশে গেছেন, তারা হলেন-

১.সুলতান বিন সালমান আল সৌদ। ২.মুহাম্মাদ ফারিস। ৩.মুসা মানারোভ।
৪.আব্দুল আহাদ মুহমাদ। ৫.তুক্তার আবাকিরভ। ৬.তালগাত মু’সাবেজভ। ৭.সালিহ’জান শারিপভ। ৮.আনুশেহ আনসারি। ৯.শায়খ মুজাফফার শোকর। ১০.আইদান আইমবিটভ। ১১.হাজ্জা আল-মানসুরি।

উল্লেখ্য যে, এ ১১ জন মুসলিম মহাকাশে গিয়েছেন এবং সেখান থেকে দেখেছেন পবিত্র নগরী মক্কা ও কাবা শরিফ। মুসলিম মহাকাশগমণ নিঃসন্দেহে আনন্দ ও গর্বের। যেখানে গিয়েও তারা ভুলে না নিজেদের পবিত্র ধর্ম ইস’লাম ও ইস’লামের তীর্থ ভূমি পবিত্র কাবাকে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের মহাকাশ ভ্রমণে যাওয়া প্রথম এই নভোচারী হাজ্জা আল-মানসুর গত ৩ অক্টোবর সকাল ১১টা ৩৪ মিনিটে কাজাখিস্তানে বাইকনুর কসমোড্রোম স্পেস বেস-এ ফিরে আসার কথা রয়েছে।