‘দেশে করোনার তীব্রতা ৩০ থেকে ৪০ ভাগ কমে গেছে’: বিজ্ঞানী বিজন কুমার

137

বাংলাদেশের মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি- দেশে আ’ক্রা’ন্ত হলেও এদের অধিকাংশই বুঝতে পারেননি যে তারা করোনা ভাইরাসে আ’ক্রা’ন্ত। শনিবার (৩০ মে) রাতে একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে ফেসবুক লাইভে এ কথা বলেন করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যের র‌্যাপিড টেস্ট কিট আবিষ্কারক দলের প্রধান ড. বিজন কুমার শীল।

তিনি বলেন, ‘আমার অবজারভেশন যেটা- অনেক মানুষ করোনা ভা’ইরাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে সুস্থ হয়ে গেছেন। তারা নিজেরাও জানেন না। আমার ধারণা ৩০-৪০ শতাংশ মানুষ করোনায় আ’ক্রা’ন্ত হয়ে গেছেন, তারা হয়তো জানেনই না। হয়তো তাদের একটু জ্বর হয়েছে, কাশি হয়েছে, দুর্বলতা অনুভব করেছে।

বিজন কুমার শীল বলেন, করোনা কাউকে ছাড়বে না। আপনি যতই লুকিয়ে থাকেন করোনা আপনাকে, আমাকে আ’ক্রা’ন্ত করবে। ইউরোপের তুলনায় বাংলাদেশের মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি। ইউরোপে যখন করোনা আ’ক্রা’ন্ত করে তখন তাপমাত্রা কম ছিল এবং বাতাস চলাচলও কম ছিল।

এবার বাংলাদেশে পঙ্গপাল!

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার মাইজবাড়ি গ্রামের একটি বাড়ির সুপারি ও নারকেল গাছের পাতায় পঙ্গপাল সাদৃশ্য পোকার আ’ক্র’ম’ণ দেখা দিয়েছে।

এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে বাড়ির লোকজন। পরে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে অবহিত করলে তারা বাড়িটি পরিদর্শন করে জানান, পোকাটি পঙ্গপাল নয় তবে এটি ক্ষতিকর ক্যাটার ফিলার জাতীয় পোকা। জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরে উপজেলার ফলদা ইউনিয়নের মাইজবাড়ি এলাকার জুব্বার আলীর বেশকিছু সুপারি ও নারিকেল গাছের কচি পাতায় এক জাতীয় পোকায় আ’ক্র’ম’ণ করে।

ধীরে ধীরে পোকাগুলি সমস্ত গাছের পাতা খেয়ে ফেলে। এতে আ’ত’ঙ্কি’ত হয়ে পড়েন বাড়ির মালিক ও স্থানীয়রা। পরে ভয়ে তারা গাছের ডাল কেটে ফেলে। বিষয়টি আশপাশে ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এই ধরণের পোকা আগে কখনো দেখেনি বলে এলাকাবাসীরা জানায়।

বাড়ির মালিক জুব্বার আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম বলেন, গত ১৫ দিন যাবত অচেনা এই পোকাগুলো বাড়ির নারিকেল ও সুপারি গাছে আ’ক্র’ম’ণ করেছে। দিন দিন পোকাগুলোর আ’ক্র’ম’ণ বৃদ্ধি পাওয়ায় একটি গাছের সবগুলো ডাল কেটে ফেলা হয়েছে। এতে বাড়ির অন্যান্য গাছ নিয়ে আ’ত’ঙ্কি’ত রয়েছি।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার মো. জিয়াউর রহমান বিডি২৪লাইভকে বলেন, বিষয়টি জানার পরই ওই বাড়িতে গিয়ে পোকাগুলো দেখা হয়েছে। পরে দেখে নিশ্চিত হয়েছি যে এটি পঙ্গপাল নয়। এটি ক্যাটার ফিটার বা খোলস জাতীয় ক্ষতিকর পোকা। যা দ্রুত এক গাছ থেকে অন্য গাছে ছড়াতে পারে। তবে ডায়‌ফেন এন৪৫ জাতীয় ওষুধ গাছে স্প্রে করলে এই পোকা মা’রা যায়।