তুহিনের পর এবার ঢাকার শিশু বাদশাকে খু’ন !

88

তুহিনের পর এবার ঢাকার শিশু বাদশাকে খু’ন- সুনামগঞ্জের শিশু তুহিন হ”ত্যা”র রেশ কাটতে না কাটতেই রাজধানী ঢাকার অদূরে সাভারে বাদশা মিয়া (৭) নামের এক শিশুকে হ”ত্যা”র অভিযোগ উঠেছে তার সৎ মায়ের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শিশুটির সৎ মা ময়না বেগমকে (২৮) আ’ট’ক করেছে পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পৌর এলাকার দক্ষিণ দরিয়াপুর মহল্লার ইউসুফ মাস্টারের ভাড়া বাসার একটি কক্ষ থেকে ওই শিশুর লা”শ উদ্ধার করে সাভার মডেল থানা পুলিশ।

নি”হ”ত বাদশা মিয়া সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানার ঘোষার গ্রামের মোঃ আনোয়ার হোসেনের ছেলে। সে সৎ মায়ের সঙ্গে সাভারে থাকতো। ময়না বেগম স্থানীয় আল-মুসলিম গ্রুপের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন।

থানা পুলিশ জানায়, প্রতিদিনের মতো সকালে বাদশা মিয়াকে বাসায় রেখে তার বাবা গেন্ডা বাসষ্ট্যাণ্ডে মাছ বিক্রি করতে যান। পরে দুপুরে বাসায় খাওয়ার জন্য এসে ছেলেকে ঘরে মৃ”ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। পরে বিষয়টি থানায় জানানো হলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নি”হ”তে”র ম”র”দে”হ”টি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, নি”হ”ত শিশুটির সৎ মা-ই তাকে শ্বা’স’রো’ধ করে হ”ত্যা করে থাকতে পারে। এ ঘটনায় পুলিশ তার সৎ মা ময়না বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আ’ট’ক করেছে।

সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, নি”হ”তে”র ম’র’দে’হ’টি উদ্ধার করে ম’য়’না’ত’দ’ন্তে’র জন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ম”র্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ম’র’দে’হ’টি দেখে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তাকে সকালের দিকে শ্বা’স’রো’ধে হ”ত্যা করা হয়ে থাকতে পারে। তবে ম’য়’না’ত’দ’ন্তে’র রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরই এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

থানা পুলিশ আরও জানান, নি’হ’তে’র সৎ মাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে পুলিশ।

মেয়ের ভাসুরকে বিয়ে করলেন মা, এরপর যা ঘটল

বিয়ের মতো সামাজিক বন্ধনের ক্ষেত্রে অনেক সময় ‘বি’ত’র্কি’ত’ কিছু ঘটনাও ঘটে। যেসব বিয়েতে সামাজিক সম্মতি থাকে না। অনেক সমালোচনাও হয়। সাধারণত তরুণরা এমন সম্পর্কে জড়ালেও ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশে ঘটেছে নিজের মেয়ে জামাইয়ের বড় ভাইকে বিয়ে করেছেন সেখানকার এক নারী।

বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ দুজনের সম্পর্কের জটিলতা ছাড়াও রয়েছে বয়সের বেশ পার্থক্য। নারীর বয়স ৩৭ বছর। যাকে তিনি বিয়ে করেছেন তার বয়স ২২ বছর। এমন ঘটনায় বিস্মিত দুই পরিবার। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের বরাতে এ খবর জানিয়েছে গাল্ফ নিউজ।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, সম্প্রতি পাঞ্জাবের মালিকপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিজের মেয়ের ভাসুরের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠেছিল ওই নারীর। নিয়মিত দেখা হতো তাদের। নতুন করে বিয়ের জন্য চলতি মাসের শুরুতে বর্তমান স্বামীকে ডিভোর্স দেন ওই নারী।

তবে তার মেয়ে-জামাই কেউ তাদের এই সম্পর্কের কথা জানতো না। গত ১৪ অক্টোবর বাপের বাড়ি ঘুরতে এসে সেখানে ভাসুরকে দেখে অবাক হন তার মেয়ে। তারপরই মূলত ঘটনাটি জানাজানি হয়। উভয় পরিবার থেকে এই বিয়ে মেনে নেয়া হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

এই বিয়ের খবর দুই পরিবার ও প্রতিবেশীদের মধ্যে চাউর হতে শুরু করে। পরিস্থিতি ধীরে ধীরে উত্তপ্ত হতে থাকলে আদালতের দারস্থ হন নব দম্পতি। উভয়ের পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে সুরক্ষার জন্য আদালতে আবেদন করেন তারা। আগামী ৩১ অক্টোবর এ বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।