জয় শ্রী রাম না বলায় ৩ মুসলিম কিশোরকে মারধর

138

একের পর এক মুসলিম নিপীড়নের ঘটনা ঘটছে ভারতে। মুসলিমদের জয় শ্রী রাম বলতে বাধ্য করা হচ্ছে। জয় শ্রী রাম না বললেই কপালে জুটছে মা র ধ র। না মা’রা যাওয়া পর্যন্ত মা’র’ধর চলেছে এমন ঘটনাও ঘটতে দেখা গেছে

এতে আ ত ঙ্কে দিন কাটছে মুসলিমদের। এবার জয় শ্রী রাম না বলায় তিন মুসলিম কিশোরকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে গুজরাটের গোধরায়। দু ষ্কৃ তী রা বাইকে চড়ে এসে তাদের মারধর করেছে বলে কিশোরের বাবা জানিয়েছেন। দু’টি বাইকে মোট ছয়জন দু ষ্কৃ তী এসেছিল। তবে তাদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

ওই তিন কিশোর একটি বাইকে করে যাচ্ছিল। মাঝ পথে তাদের থামিয়ে জয় শ্রী রাম বলতে বাধ্য করে দু ষ্কৃ তী দের ওই দলটি। এলাকায় ওই কিশোরদের আবারও দেখা গেলেও প্রা ণ না শ করা হবে বলে হু ম কি দেন অভিযুক্তরা। পরে সেখান থেকে পালিয়ে যায় তারা। অজ্ঞাত ওই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দয়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে ওই ঘটনা ঘটেছে। মারধরের শিকার সিদ্দিক নামের এক কিশোরের দাবি, ওই রাতে তারা মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিল। মাঝপথে দুটি বাইকে করে অজ্ঞাত পরিচয়ে ছয়জন সমীর সিদ্দিক, সালমান ও সোহেল ভগতকে থামায়। তাদের জয় শ্রী রাম বলতে বলে। তারা এই কথা না শোনায় শুরু হয় মা র ধ র।

সমীরকে কপালে সাইকেলের চেন দিয়ে আঘাত করা হয়। সালমানের মাথায় ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করা হয়। বাকি একজনকেও অনেক মারধর করা হয়। আহত অবস্থায় সমীর এবং তার বন্ধুদের হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

পুলিশ জানিয়েছে, ভুক্তভোগীরা এখন কথা বলার মতো অবস্থায় নেই। ফলে পুরো বিষয়টি তাদের মুখ থেকে জানা যায়নি। ছয়জন অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

উপস্থাপক মুসলিম তাই চোখ ঢেকে রাখলেন হিন্দু নেতা…

সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে হিন্দু-মুসলিম দ্বন্দ্ব বেড়েই চলেছে। কিছুদিন আগেই জোম্যাটো কোম্পানির সরবরাহ করা খাবার এক মুসলিম ডেলিভারি বয় নিয়ে যাওয়ায় সে খাবার রাখেননি অমিত শুক্লা নামের এক গ্রাহক। এর মধ্যেই জাতীয় টিভি চ্যানেলে নতুন কাণ্ড ঘটালেন ‘হাম হিন্দু’ নামের একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা অজয় গৌতম।

নিউজ২৪ নামের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে আমন্ত্রিত হয়ে এসেছিলেন গৌতম। বক্তব্যের বিষয় ছিল সেই জোম্যাটো প্রসঙ্গ। যেই মুহূর্তে ওই অনুষ্ঠানের উপস্থাপক স্টুডিওতে প্রবেশ করেন, সঙ্গে সঙ্গেই নিজের চোখ ঢেকে রাখেন গৌতম। কারণ উপস্থাপক একজন মুসলিম। খালিদ নামের ওই উপস্থাপককে দেখা থেকে বিরত থাকতেই টিভির সম্প্রচারের সময় নিজের চোখ ঢেকে নেন গৌতম ।

এই ঘটনার তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ওই টিভি চ্যানেলের প্রধান সম্পাদক অনুরাধা প্রসাদ। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনায় আমরা অত্যন্ত হতবাক। তার আচরণ অত্যন্ত নিন্দনীয় এবং এ কারণেই ভবিষ্যতে তাকে আর ওই চ্যানেলের কোনও অনুষ্ঠানে ডাকা হবেনা বলে এক টুইটে জানিয়েছেন অনুরাধা।

সামাজিক মাধ্যমেও এই ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছেন। এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন নেটিজেনরা। এমনকি ব্রিজেশ কালাপ্পার মত হিন্দুত্ববাদী ব্যক্তিত্বও এই ঘটনার প্রতিবাদ করেছেন।

গৌতমের ‘হাম হিন্দু’ ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এর ওয়েবসাইটেও লেখা রয়েছে ‘মুসলিম তোষণনীতির বিরুদ্ধে লড়াই ও সম্পূর্ণ হিন্দু রাষ্ট্র গড়ে তোলাই মূল লক্ষ্য।’