কেমব্রিজ মসজিদ উদ্বোধনকালে এরদোগানের কণ্ঠে সুমধুর কোরআন তেলাওয়াত

203

এরদোগানের কণ্ঠে সুমধুর কোরআন- তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান গত বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের কেমব্রিজ কেন্দ্রীয় মসজিদের উদ্বোধন করেছেন। এ সময় এরদোগানের সঙ্গে সহধর্মিনী এমিলি এরদোগান এবং দেশটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মসজিদে তিনি সূরা আল ইমরানের কিছু আয়াত তেলাওয়াত করলে আবেগে মুসল্লীরা কেঁদে ফেলেন। সম্প্রতি কয়েকটি ই’স’লা’ম’ফো’বি’য়া আ’ক্র’ম’ণে’র কথা উল্লেখ করে এরদোগান বলেন, শুধুমাত্র মাথায় স্কার্ফ পড়ার কারণে মুসলিম নারীরা হে’ন’স্তা’র শিকার হন।

এরদোগান বলেন, ব’র্ণ’বা’দ, বৈ’ষ’ম্য এবং ই’স’লা’ম’ফো’বি’য়া বিষের মতো ছড়িয়ে পড়েছে একসময় গণতন্ত্রের সুতিকাগার হিসেবে দেখা দেশগুলোর মধ্যে।

আয়েশার দুঃখ ভোলাতে হঠাৎ তার বাড়িতে হাজির আবুধাবির রাজা !

আবুধাবির বাসিন্দা ফুটফুটে শিশু আয়শার বাড়িতে হঠাৎ করেই হাজির হলেন আবুধাবির রাজা শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ। সেই শিশুর কাছে ক্ষমাও চাইলেন রাজা। আয়শার কপালে চুমু দিয়ে আদর করলেন।

এভাবেই শিশুর আয়শার মনকে আবার আনন্দে ভরিয়ে দিলেন আবুধাবির রাজা। এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও বেশ সাড়া ফেলেছে। অবাক হওয়ার পাশাপাশি আবুধাবির রাজাকে প্রশংসায় ভাসাচ্ছে নেট দুনিয়া।

গত সপ্তাহে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল আরো একটি ভিডিও। যেখানে দেখা যায়, ভুলবশত অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা আয়শা নামের ওই শিশুর সঙ্গে হাত মেলাতে ভুলে যান রাজা শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ। সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রভাবশালী দৈনিক খালিজ টাইমস জানিয়েছে, গত সপ্তাহে আবুধাবির রাষ্ট্রপতি ভবনে

সৌদি আরবের রাজা মোহাম্মদ বিন সালমানকে স্বাগত জানানোর জন্য ‘ওয়েলকাম সেরিমোনি’-তে অন্যান্য শিশুদের সঙ্গে অংশ নিয়েছিল আয়েশা। রাজাকে ছুঁতে পারবে সে। তার দিকে চেয়ে মিস্টি হাসবেন রাজা। কিন্তু সব স্বপ্নই মিথ্যা হয়েছিল তার।

তার সঙ্গে সৌজন্য দেখাতে ভুলে গিয়েছিলেন আবুধাবির রাজা শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ। অন্য সব শিশুর সঙ্গে হাত মেলালেও ভিড়ের মধ্যে আয়শাকে খেয়ালই করেননি তিনি।

ভুলবশত: আয়শার সঙ্গে হাত না মিলিয়ে চলে যান আবুধাবির রাজা শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ। আর সেই দৃশ্য নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।ভিডিওতে দেখা গেছে, রেড কার্পেটের ওপর দিয়ে হেঁটে আসছেন সৌদি বাদশাহ সালমান ও আবুধাবির রাজা বিন জায়েদ।

দুই রাজাকে সংবর্ধনা দিতে রেড কার্পেটের দুই ধারে লাইন করে সেজেগুজে দাঁড়িয়ে শিশুরা। রাজার সঙ্গে হ্যান্ডশেক করতে ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে দেখা যায় আয়েশা দাঁড়িয়ে। দুজনের সঙ্গে হাত মেলানো উদ্দেশ্যে একবার জায়গাও বদল করে নেয় আয়েশা।

কিন্তু আবুধাবির রাজা মোহাম্মদ বিন জায়েদ বেখেয়ালে আয়েশাকে পাশ কাটিয়ে চলে যান। এ ঘটনা কানে যায় রাজার। সময় পেয়েই সারপ্রাইজ দিয়ে সোজা পৌঁছে যান ছোট্ট মেয়েটির বাড়িতে। আয়েশার হাতে এবং কপালে চুমু খেয়ে তার কষ্ট লাঘব করেন রাজা।

আয়শার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখাও করেন তিনি। ছবি তোলেন আয়শার সঙ্গে। আর সেসব ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই শেয়ার করেন।