কাশ্মীরে ভারতকে অপরাধ ঢাকার সুযোগ দেয়া হবে না: পাক সেনাপ্রধান

53

কাশ্মীরে ভারতকে অপরাধ ঢাকার সুযোগ- পাকিস্তানের সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া বলেছেন, অধিকৃত কাশ্মীরে নেয়া অবৈধ পদক্ষেপে থেকে বৈশ্বিক মনোযোগ নিয়ন্ত্রণ রেখা ও পাকিস্তানের দিকে সরিয়ে নিতে চাচ্ছে ভারত। কিন্তু কাশ্মীরে তাদের সংঘটিত অপরাধ ঢাকার কোনো সুযোগ দেয়া হবে না।

নিয়ন্ত্রণ রেখার বাগ সেক্টর পরিদর্শনকালে পাকিস্তানি সেনাপ্রধান এমন মন্তব্য করেন। সেখানে সেনা সদস্যদের সঙ্গে তিনি ঈদ কাটান বলে দেশটির আন্তঃবাহিনী গণসংযোগ অধিদফতরের বিবৃতিতে জানিয়েছে।-খবর এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের

তিনি বলেন, অধিকৃত কাশ্মীর থেকে বিশ্বের সম্পূর্ণ মনোযোগ নিয়ন্ত্রণ রেখা ও পাকিস্তানে নিয়ে যেতে চাচ্ছে ভারত, যাতে তারা সেখানে যা-ইচ্ছা তা করতে পারে। কাজেই জম্মু ও কাশ্মীরে তারা যে অপরাধ করেছে, তা ঢাকার কোনো সুযোগ তাদের দেয়া হবে না।

চলতি মাসের শুরুতে কাশ্মীরের বিশেষ সাংবিধানিক মর্যাদা কেড়ে নিয়েছে ভারতের ক্ষমতাসীন নরেন্দ্র মোদির সরকার। সীমান্তে সেনাদের উদ্দেশ্যে দেয়া বক্তব্যে কামার জাভেদ বলেন, কাশ্মীর সংকট নিরসনে পাকিস্তান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। শান্তির জন্য যতটা জোরালো দরকার, আমরা ততটাই পদক্ষেপ নেব বলে জানান তিনি।

পাকিস্তানের এই আর্মি জেনারেল বলেন, ধর্ম আমাদের শান্তির কথা শিখিয়েছে। কিন্তু সত্যের পক্ষে দাঁড়াতে ও আত্মত্যাগের কথাও বলেছে। কাজেই কাশ্মীরি ভাই-বোনদের পক্ষে আমাদের দাঁড়তে হবে। এতে যতো চেষ্টা ও সময় লাগুক না কেন।

সুত্র-যুগান্তর।

কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে শুনানি আজ

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারার আওতায় কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে মামলা হয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্টে। এই মামলার শুনানি আজ।

এ ব্যাপারে আবেদন করেছিলেন কংগ্রেসকর্মী তেহসিন পুনাওয়ালা। আজ মঙ্গলবার মামলার শুনানি হবে তিন বিচারপতির বেঞ্চে। এই বেঞ্চের শীর্ষে রয়েছেন বিচারপতি অরুণ মিশ্র। অন্য দুই বিচারপতি হলেন এম আর শাহ এবং অজয় রাস্তোগী। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

এ ছাড়াও কাশ্মীর টাইমসের একজিকিউটিভ এডিটর অনুরাধা ভাসিন অন্য একটি মামলাও দায়ের করেছেন। ৩৭০ ধারা সম্পর্কিত সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর কর্মরত সাংবাদিকদের ওপর যে বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে তা প্রত্যাহার করার কথা বলা হয়েছে ওই মামলায়। সুপ্রিম কোর্টে সে মামলার দ্রুত শুনানির জন্য বলা হতে পারে।

কংগ্রেসকর্মী তেহসিন পুনাওয়ালার বরাত দিয়ে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, তেহসিন পুনাওয়ালার ৩৭০ ধারা সম্পর্কে কোনো মতামত রাখছেন না, কিন্তু কা’র’ফিউ বা বিধিনিষেধ প্রত্যাহার চাইছেন। একইসঙ্গে জম্মু কাশ্মীরজুড়ে যেভাবে ফোনলাইন, ইন্টারনেট ও নিউজ চ্যানেল সম্প্রচার বন্ধ রাখা হয়েছে, সে নির্দেশ তুলে নেয়া হোক চাইছেন তিনি।

এ ছাড়াও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা, মেহবুবা মুফতিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের সুপ্রিম কোর্ট মুক্তি দেয়ার আদেশ দিক, এমনটাই বলা হয়েছে পুনাওয়ালার আবেদনে। পুনাওয়ালার দাবি, কেন্দ্র যে সিদ্ধান্তগুলি নিয়েছে তা সংবিধানের ১৯ ও ২১ নং অনুচ্ছেদের পরিপন্থী।