আশুলিয়ায় সুতার কারখানায় আ গুন…

32

আশুলিয়ায় সুতার গোডাউনে- সাভারের আশুলিয়ায় আ গুনে একটি সুতার গোডাউন পু ড়ে গেছে। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে আশুলিয়ার জমগড়ার ফ্যান্টাসি কিংডমের পাশে কাঁঠালতলা এলাকায় অবস্থিত সিটি গ্রুরুপের একটি সুতার কারখানায় এ আ গুনের সূত্রপাত হয়।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে ৫ ঘণ্টা চেষ্টার পর সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আ গুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের ও সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আ গুনের খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনা স্থলে পৌঁছি। সুতার গোডাউন হওয়ায় আ গুন খুব তাড়াতাড়ি ছড়িয়ে পড়ে। ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট, সাভার ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ও মিরপুর থেকে একটি ইউনিট এসে আ গুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে।

আ গুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা।

দেশবাসীকে ন্যাপের ঈদ শুভেচ্ছা

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দেশবাসী ও বিশ্বের সকল মুসলামানকে দলের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক শুভেচ্ছা বার্তায় পার্টির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ শুভেচ্ছা জানান।

শুভেচ্ছা বার্তায় নেতৃদ্বয় বলেন, এবার এমন একসময় আমাদের মাঝে পবিত্র ঈদুল আজহা উপস্থিত যখন দেশের মানুষের জান ও মালের কোনো নিরাপত্তা নেই। গু ম, হ ত্যা ও খু নে আজ কোথাও স্বস্তি নেই। ঘরে নিরাপত্তা নেই, বাইরে নিরাপত্তা নেই, সর্বত্র আজ বিরাজ করছে হতাশা। ডেঙ্গু-বন্যা আর গুজবের কারণে দেশবাসী আতঙ্কিত। আর এই সকল বিষয়ে সরকারের দায়িত্বশীলরা দিচ্ছেন বিভ্রান্তিকর বক্তব্য।

নেতৃদ্বয় বলেন, মানুষের অতীতের সকল দুঃখ, কষ্ট ও গ্লানি কাটিয়ে সুন্দরকে গ্রহণ এবং ধনী-গরিব বিভেদ ভুলে সকল প্রকার ফেতনা-ফ্যাসাদ ছেড়ে দিয়ে সুদৃঢ় ঐক্যের ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সত্যিকার দেশপ্রেমিক হিসেবে ইসলাম, ঈমান, দেশ ও মানবতার কল্যাণে কাজ করার শিক্ষা নেই।

নেতৃদ্বয় সর্বস্তরের জনতার প্রতি ঈদুল আজহার অনাবিল আনন্দ, সুখ সমৃদ্ধি, সুস্বাস্থ্য, শান্তি-সমৃদ্ধি, উন্নতি কামনা করেন এবং ইসলাম-ঈমান, দেশ ও মানবতাবিরোধী যেকোনো ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়ানোর জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

নেতৃদ্বয় আশা প্রকাশ করেন যে, ঈদুল আজহার ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত হয়ে মানুষের মনের সকল প্রকার হিংসা-বিদ্বেষ, সংকীর্ণতা, কুটিলতা পরিহার করে বয়ে আনবে অনাবিল সুখ, শান্তি ও পবিত্রতা।

ঈদুল আজহার পবিত্রতা রক্ষার্থে মুসলমানরা আরও বেশি ত্যাগের মাধ্যমে উত্তম জীবন-যাপন করবে এমনই প্রত্যাশা নেতৃদ্বয়ের।